স্টেট ইউনিভার্সিটিতে আন্তর্জাতিক ই-সম্মেলন সম্পন্ন

“খাদ্যবিজ্ঞানে ন্যানোপ্রযুক্তিঃ খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরন, মোড়কীকরন, ও নিরাপদ খাদ্য”উক্ত শিরোনামে খাদ্য প্রকৌশল ও প্রযুক্তিবিদ্যা বিভাগ, স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশও বাংলাদেশনিরাপদ খাদ্যকর্তৃপক্ষ সম্মিলিতভাবে১৫ই ফেব্রুয়ারি ২০২২ ইং তারিখেআয়োজন করে একটি আন্তর্জাতিক ই-সম্মেলন।বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদের ডীন ও বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ডক্টর মোঃ আনিস আলম সিদ্দিকি এর সভাপতিত্বে ও সম্মেলনের আহ্বায়ক সহযোগী অধ্যাপক ডক্টর মুহাম্মদ শফিউর রহমানএর পরিচালনায় প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন দক্ষিন কোরিয়ার গিয়াংসাং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশিষ্ট বিজ্ঞানীঅধ্যাপক ডক্টর সিয়ন-তে জু,ওমানের সুলতান কাবোস বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশিষ্ট বিজ্ঞানীঅধ্যাপক ডক্টর মোঃ শফিউর রহমান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টি ও খাদ্য বিজ্ঞান ইন্সিটিটিউটের পরিচালক অধ্যাপকডক্টর খালেদা ইসলাম,প্রাইমেশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদের ডীন ও অনুজীববিদ্যা বিভাগের প্রধানঅধ্যাপক ডক্টর শুভময় দত্ত, ইসলামীবিশ্ববিদ্যালয়ের ফলিত পুষ্টি ও খাদ্য প্রযুক্তিবিদ্যা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ডক্টর এস এম আব্দুর রউফ, ইউরোপের ইষ্টনিয়ান বিশ্ববিদ্যালয় অব লাইফসাইন্সের অধ্যাপক ডক্টর রাজীভ ভাট, কুয়েতের বৈজ্ঞানিক গবেষণা ইন্সিটিটিউটের বিজ্ঞানী ডক্টর জসীম আহমেদ, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডক্টর গুলজার আজিজ, ভারতের বিহার কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক ডক্টর মোঃ ওয়াসিম সিদ্দিকী, এবংইন্দোনেশিয়ারইউনিভার্সিটিস গাদজাহ মাদার ডক্টর চুক-ট্রি নভিয়ান্দি।উক্ত সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব মো: আব্দুলকাইউমসরকার, চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত সচিব), বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ, সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব আহসান খান চৌধুরী, প্রধান নির্বাহী ও সভাপতি, প্রাণ আরএফএল গ্রুপ, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ডক্টর নওজিয়া ইয়াসমিন, উপ-উপাচার্য, স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, জনাব মোঃ রেজাউল করিম, সদস্য, বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ, ও জনাব মাদাদ আলী ভিরানি, নির্বাহী পরিচালক, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিস লিমিটেড । উক্ত সম্মেলনে বক্তাদের বক্তব্যে উঠে এসেছে যে তথাকথিত প্রযুক্তি থেকে বের হয়ে ন্যানোপ্রযুক্তি ব্যাবহারের মাধ্যমে খাদ্য প্রক্রিয়াজাত ও মোড়কীকরন করে নিরাপদ ও পুষ্টি সমৃদ্ধ খাদ্য নিশ্চিত করা যেতে পারে ।